May 29, 2019

জুন যন্ত্রনা!

প্রায় প্রতি বছরই ঠিক জুন মাসের আগে আগে চারদিক থেকে ফোন আসা শুরু হয়। কী ব্যাপার? ব্যাপার কিছু না, ডেভেলপমেন্ট নিয়ে কাজ করে যে সব প্রতিষ্ঠান তাদের অর্থ-বছর শেষ হচ্ছে। তার মানে আগের বছর করা হয়নি এমন সব জুনের মধ্যে শেষ করতেই হবে! এবং ডেভেলপমেন্ট এর একটা বড় কাজ হল সহজবোধ্য কার্টুন/ ইলাস্ট্রেশন দিয়ে আম-জনতা বুঝবে এমন কিছু করে প্রিন্ট ম্যাটেরিয়াল তৈরী করা। বেশ ভাল কথা। এ ধরনের কাজ করতে আমরা পছন্দই করি, প্রধান কারণ এতে পকেটে দু' চার টাকা আসে।

ক্যারিয়ারের প্রথম থেকেই আমি এসব কাজ করার ব্যাপারে বেশ বাছাই করার চেষ্টা করতাম। কাজের স্কেল, কে করাচ্ছে, আর উদ্দেশ্য - ইত্যাদী পছন্দ হলে কাজটা করতাম, এভাবে GIZ, UNICEF, Action Aid, BRAC, FIVDB এমন আরো অনেক এন জি ও এবং জি ও (সরকারী) কাজ করা হয়েছে। তবে ইদানীং এসব কাজ করা বাদ দিচ্ছি, তার কারণ বুঝতে হলে বাকীটা পড়তে হবে।  যেমন-

সম্ভাব্য ক্লায়েন্টের সাথে আমার কথোপোকথন

-হেলো মেহেদী ভাই ভালো আছেন?

-জ্বী ভালো, কে বলছেন?

-চিনলেন না? ওই যে বছর পাঁচেক আগে একবার একটা কাজ করলাম আমরা। (অর্থাৎ পাঁচ বছর পর আমি শুনেই চিনে ফেলব তাকে)

-স্যরি ভাই নাম মনে পড়ছে না।

-আরে আমি----(ওমুক)

-জ্বী ভাই বলেন।

-ভাই, একটা কাজ করতে হবে যে, বেশী না মাত্র ৪০ টা ড্রয়িং, ফুল কালার, পরশু দিন লাগবে একটু করে পাঠায়ে দেন।আমি ইমেইল আইডি দিচ্ছি, আর ভাই একটু ডিটেইল হবে আর কি কাজ-হেহে।

-ভাই, ইমেইল আইডি পরে পাঠান, আমি আদৌ কাজটা করবো কি না, ফ্রি আছি কিনা সেটা আগে জানতে হবে তো।

-ও হ্যাঁ হ্যাঁ, মানে ভাই পারবেন না?

-পারবো, কিন্তু ড্র্যয়িং প্রতি আমাকে একদিন সময় দিতে হবে। আর কাজের আগে ৩০% এডভান্স আমার একাউন্ট এ দিতে হবে।

-মানে? ৪০ টা ড্রয়িং সময় লাগবে ৪০ দিন?

-হ্যাঁ।

- কিন্তু কিন্তু আমাদের সময় তো ভাই মাত্র ৭ দিন।

- কিন্তু আমার তো তা না, আমার সময় অনেক। ডেডলাইনটা আপনার, আমার না। আপনার ডেডলাইনের যন্ত্রনা আমি কেন নেব? আমি হ্যাপি লাইফ কাটাই, ঘুরি ফিরি ছবি আঁকি, টেনশন নিয়ে কাজ করি না।

-ও কিন্তু ভাই এটার কিন্তু বেশ ভাল পেমেন্ট ছিল।

- কিছু যায় আসে না ভাই। আল্লা হাফেজ।

এসব আলোচনার শেষ পর্বে এসে হাসিও পায়, বিরক্তও লাগে। এইটুকু পেশাদার এখনো আমরা হচ্ছি না কেন কে জানে। যাই হোক সবাই এরকম না, সংখ্যায় অল্প হলেও বেশ কিছু ভালো ক্লায়েন্ট আছেন, তাঁরা ভদ্র ও পেশাদার। আমার দিক থেকে আমিও সময়মতই সব কাজ যা দরকার তার চেয়ে বেশী ই করে দেই, তাই সেসব প্রজেক্টে সমস্যা হয় না। বেশ কিছু অনুরোধের ঢেঁকি প্রজেক্টও থাকে মাঝে মাঝেই। (এ বছরও আছে)। আর সাথে চলছে পুরোদমে জুনের অর্থ-বছর শেষের আগের রেলগাড়ি প্রজেক্ট। একের পর এক কাজ নামিয়ে যাচ্ছি।
জয় জুন!

কিছু স্ক্রিন শট তুলে দি' গত কিছু দিনের কাজের-

১৩ পৃষ্ঠার কমিক্স, চরাঞ্চলের বন্যা পূর্ববর্তী প্রস্তুতিমূলক সতর্কতা- ইত্যাদী।


হাত ধুই- ভাল থাকি এই ধরনের ক্যাম্পেইন। 

আবর্জনা ব্যবস্থাপনা নিয়ে কাজ, এই দুইটা মূলত বিলবোর্ড হচ্ছে, প্রিন্ট শেষ।



বেশ আগে শুরু করা কাজ, এখনো চলছে। সকাজের মাঝামাঝি স্ক্রিপ্ট পালটে যাওয়াতে আবার করতে হচ্ছে। এটা এনিমেশন প্রজেক্ট

ফ্রেন্ডশিপ হাসপাতালের প্রমো এনিমেশনের স্টোরিবোর্ড

হাত ধোয়া নিয়ে আরেক প্রস্থ।


যাই হোক, এই জুন এন্ডিং অর্থ বছরের প্রকোপে মে মাসের অনেকটাই আমার কাটে আঁকার টেবিলে। আর বছরের বাকী সময়টা কাটাই আঁকার টেবিলে।

2 comments:

বিদায় ব্লগস্পট

গুণে গুণে ১২ বছর এখানে কাটালাম, এবং হঠাৎ সেদিন হঠাৎ আবিষ্কার কুরলাম আমি ছাড়া আর কেউই নেই আশেপাশে। খোঁজ নিয়ে দেখতে পাচ্ছি এখন আর্টিস্টরা সবাই...