May 27, 2017

নিহিলিন ক্লাব কমিক্সঃ গোরদানো

নিহিলিন ক্লাব,এই সিরিজটা একেবারেই আমার নিজের, সেটাই কেন জানি করা হয় সবচে' কম। অনেক ভেবে কারণ বের করেছি। সেটা হল যেহেতু সবচেয়ে পছন্দের সেহেতু সবচেয়ে ভাল করে করব ভাবতে ভাবতে করাই হয় না। এইবারে ঠিক করেছি সবচেয়ে পছন্দের কাজ যাতে বেশী বেসী করা যায় সে জন্যে সহজ একটা স্টাইল বানাবো। দেখা যাক কী হয়। গল্প টা কিশোর আলোর ঈদ সংখ্যায় আসছে। সবার কাছে কেমন লাগল জানার অপেক্ষায় রইলাম।

ভাল কথা এই প্রথম মাঙ্গাস্টুডিওর নতুন ভার্সন ক্লিপ্সটুডিওতে কাজ করলাম। খুবই স্মার্ট এবং কমপ্লিট সফটওয়ার, তবে বেশ ভারি, আর কালার ক্যালিব্রেশন ভালো না তেমন। দেখি হয়ত করতে করতে হাতে আসবে। এখনো পর্যন্ত মাঙ্গা ফোর ইএক্স আমার দেখা সেরা।







May 25, 2017

Inking speed up

কমিক্স আঁকচি, নিহিলিনের ছোট গল্প গোরদানো। কিশোর আলো ঈদ সংখ্যার জন্যে। কাল করা স্ক্রিন ক্যাপচার।

April 06, 2017

Finished not Perfect: সাম্প্রতিক আঁকিয়ে ডাইলেমা

সম্প্রতি বিখ্যাত কমিক বুক আর্টিস্ট কাম ক্যারেক্টার ডিজাইনার Jake Perker তাঁর একটা ভিডিওতে জানিয়েছেন শিল্পীদের কাজ Perfect করার চাইতে Finish করা বেশী জরুরী। ভিডিওটি রীতিমতন ভাইরাল হয়ে গেছে, অসংখ্য আঁকিয়ে হঠাত যেন জেগে উঠে বুঝে ফেললেন কেন তাদের
   

কাজ এদ্দিন হচ্ছিলো না। আমিও দারুণ উত্তেজিত, কারণ আমার খুব ভাল করে আঁকবো ভেবে অসমাপ্ত প্রজেক্ট অসংখ্য। তাই কোমড় বেঁধে সেগুলি একে একে শেষ করব ভেবে পুরোনো স্কেচ বইয়ের ধূলো ঝাড়া শুরু করলাম। এর মাঝে হঠাত একদিন এক জুনিয়র আঁকিয়ে মুখ গোমড়া করে জানালো সে এক অদ্ভূত সমস্যায় পড়েছে। সে Jake Perker এর কথা শুনে কাজ করা শুরু করেছিল সেটা দেখে আরেক সিনিয়র আঁকিয়ে বলেছে বাজে কাজ করার চেয়ে কিছু না করা ভাল। ব্যস। সে আটকে গেছে। দুইটাই সমান যুক্তির মনে হচ্ছে তার এখন সে কিছু না করে হ্যাং মেরে আছে। শুনে আমার মনে হল তাই তো, কারণ Jake এর কথা কিন্তু অনেক তরুণ আঁকিয়ের জন্যে সমস্যাও করবে। সে হয়ত কিছু শেখেইনি, কিন্তু প্রজেক্ট ফিনিশ করার জন্যে যা-তা কাজ শুরু করে যদি ভাবে আমি অন্তত শেষ করেছি? আবার অন্যদিকে যেই আঁকিয়ে বলেছে ভাল না হলে করার দরকারই নাই সেটার কী হবে? এই দু ধরনের কথা আমরা আলাদা করে আগে ভেবে দেখি-

Jake বলেছে, 
কাজ শেষ কর, একেবারে পার্ফেক্ট করার চেয়ে সেটা জরুরী।

এখন আমার মতে Jake এটা আসলে যাদের জন্যে বলেছে তারা পেশাদার আঁকিয়ে, এবং তারা যতই তাড়াতাড়ি করে কাজ করুক না কেন , খুব বেশী খারাপ করার তাদের পক্ষে সম্ভবই না। সে আসলে এমেচারদের জন্যে বলে নাই কথাটা। তার মানে একেবারে নতুন শিখছে যারা তারা যদি এখন কাজ ফিনিশ করার প্রাধান্য বেশী দেয় তাহলে আসলেও কিছু আবর্জনা বের হবার সম্ভাবনা আছে। তার আসল কাজ শেখা। 

আর অন্য কথাটা হল,
ভাল না হলে কাজ করার মানে নাই। 
এটা চরমপন্থী বোকা বোকা কথা। কারণ ভালোর কোন শেষ নেই। সবসময়েই আমার কাজের চেয়ে কারো না কারো কাজ ভাল হবেই। তার মানে কি সারাজীবন আমি কাজ করবো না? ভাল করতেই থাকব? এই দুই ধরনের কথার থেকে মাঝামাঝি একটা জায়গা আমার মনে হয় বলা যেতে পারে সেটা হল-

প্রজেক্টের ডেডলাইন বুঝে আমার এই সময়ের সর্বোচ্চ কোয়ালিটিতে আমি কাজ শেষ করব।

যে কোন একটা মেনে চলতে গেলে ধরা খাবার চান্স আছে। হয় কমপ্লিট কিছু প্রজেক্ট হবে যা আসলে খুবই বাজে। অথবা কিছু হবেই না, মধ্যপন্থায় তাই দুইটাই করা ভাল। আর আমি যেই কাজটা করি সেটা হল যেটা আমি এখনো শিখছি মানে ভাল পারি না কিন্তু চাই করতে সেটা আমি স্কেচ খাতাতে প্র্যাকটিস করে যাই। কিন্তু প্রিন্টের জন্যে মানে ফাইনাল কাজ হিসেবে দেই যেটা আসলে আমি মোটামুটি করে ফেলতে পারি সেটা। তার মানে আমার সবসময়ের কাজের চাইতে আমার স্কেচ খাতা এগিয়ে থাকে। 

তো চলুক সবকিছুই একসাথে সমান তালে।